Awas Yojana 2022 list – আবাস যোজনায় লিস্টে নাম না এলে, এই কাজটি করতে পারেন! কেন্দ্র সরকারের নতুন নির্দেশিকা।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় (Awas Yojana 2022 list) ১৫ দফার একটি নির্দেশিকা।

Awas Yojana 2022 list – আজকালকার দিনে দুর্নীতি নেই, এমন ক্ষেত্র (Sector) নেই বললেই চলে। এই দুর্নীতির মূলে রয়েছে মানুষের লোভ। যাদের মাথায় ছাদ নেই, কিংবা যাদের পাকাবাড়ি নেই, মূলত তাদের জন্য কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে চালু করা হয়েছিল “প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা”। কিন্তু, সামনে উঠে আসে দুর্নীতি(Corruption).

যোজনায় সামিল হয়ে রয়েছেন এমন একাধিক মানুষ যাদের যথেষ্ট টাকা-পয়সা রয়েছে। এটা দুর্নীতি নয় তো আর কি? কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে এই দুর্নীতি নিয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন হাজারো মানুষ।ঘটনার ফলস্বরূপ তড়িঘড়ি কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে প্রকাশ করা হয় ১৫ দফার একটি নির্দেশিকা (Guidelines).

Advertisement

Electricity Bill – ১০০০ টাকার ইলেকট্রিসিটি বিল হবে ৬০০ টাকা, বাড়িতে মিটারের পাশেই এটি বসান।

পাশাপাশি পঞ্চায়েত দপ্তরও এগিয়ে আসে এ বিষয়ে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়, আগামী দিনে খুব শীঘ্রই প্রতিটি ব্লক অফিসে অভিযোগ দায়ের করার জন্য বসানো হবে ড্রপবক্স। পশ্চিমবঙ্গের অধীন যেকোনো জেলায় নির্দিষ্ট ব্লকের অন্তর্গত মানুষ মূলত প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (Awas Yojana 2022 list) সম্পর্কে তাদের যাবতীয় অভিযোগ লিখিত রূপে ঐ ড্রপবক্সে জমা দিতে পারবেন।

ঐ সমস্ত অভিযোগ পৌঁছে দেওয়া হবে রাজ্য সরকারের কাছে, সাথে থাকবে সমস্ত অভিযোগের সমাধানও, তাও আবার ১২ ঘণ্টার মধ্যে। প্রতিটি জেলার জেলা শাসককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সমস্ত অভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য। অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে, যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানালেন নবান্ন কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও রাজ্য সরকারের অধীনে প্রতিটি সাব-ডিভিশনাল(Sub-divisional) অফিসে থাকবে একটি করে কন্ট্রোল রুম (Control Room). এখানেও আপনি দায়ের করতে পারবেন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (Awas Yojana 2022 list) সম্পর্কিত আপনার সমস্ত অভিযোগ।

Awas yojana apply 2022 : বাংলা আবাস যোজনায় আবেদন করলে ১,২০,০০০ টাকা পর্যন্ত পেয়ে যাবেন, আবেদন করবেন কিভাবে জানুন

আবাস যোজনা সম্পর্কিত দুর্নীতি রুখতে তৈরি করা হয়েছিল একটি বিশেষ পর্যবেক্ষক দল। জেলাশাসকের পাশাপাশি প্রতিটি জেলার নির্দিষ্ট পর্যবেক্ষক দলেরও দায়িত্ব থাকবে ১২ ঘণ্টার মধ্যে ড্রপবক্সে থাকা অভিযোগের সমাধান তৈরি করার জন্য।

এর ফলে দুর্নীতি কিছুটা হলেও কম করা যাবে বলে আশঙ্কা করছেন রাজ্য সরকার।
এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবরের আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Arpita Sen.

সকালের বার্তার নিউজ সবার আগে পেতে Follow করুন সকালের বার্তার গুগল নিউজ, সকালের বার্তা ফেসবুক পেজ, সকালের বার্তা টেলিগ্রাম গ্রুপ ও WhatsApp Group.

Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *