নিউজ

নূপুরের মন্তব্য বিতর্কের মাঝেই ‘বেফাঁস’ মন্তব্যের জেরে এবার ত্বহা সিদ্দিকির বিরুদ্ধে FIR দায়ের

FIR filed against Taha Siddiqui :বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মার পয়গম্বর মন্তব্যে অশান্ত গোটা রাজ্য। একদিকে দাঙ্গা অন্যদিকে একের পর এক নেতামন্ত্রীদের বিতর্কিত মন্তব্য। এবার নুপুর শর্মা বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী।শিবলিঙ্গ নিয়ে পালটা অবমাননাকর মন্তব্য করে শিরোনামে ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী।হিন্দু দেবতা মহাদেবকে নিয়ে কটূক্তি ও অপমানজনক মন্তব্য করার জন্য ত্বহা সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে গোলাবাড়ি থানা সহ একাধিক থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিজেপি নেতা উমেশ রাই অভিযোগ করে জানান সোশ্যাল মিডিয়াতে তিনি ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকীর একটি ভিডিও দেখেন। যেখানে ওই মুসলিম ধর্মগুরু শিবলিঙ্গ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। তাঁর উচ্চারিত কথা কোনও সনাতনী হিন্দু শুনতে ও সহ্য করতে পারবেন না। তাঁর বক্তব্য দেশের হিন্দু সমাজের ভাবাবেগে আঘাত করেছে।

আরও পড়ুন :  বিশ্বে প্রথম কোনো মমির গর্ভে শিশু সন্তানের অস্তিত্ব পাওয়া গেলো

এই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, তিনি বলছেন জামা মসজিদে নাকি লিঙ্গ পাওয়া গিয়েছে, এটা তো সমাজের একটি হাসির খোরাক। এখানেই তিনি থেমে যাননি। তিনি আরও বলেছেন, শিবের কং বড় লিঙ্গ যে সাড়া ভারতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। শিবের লিঙ্গের এত পছন্দ যে মুসলমানদের মসজিদগুলোতে গিয়ে বসে পড়ছে। শুধু তাই নয়। এইরূপ বিরুপ মন্তব্য করে তিনি এই সমস্ত কথাকে পাগলামির সঙ্গেও তুলনা করেছেন।এই ভাইরাল ভিডিওর কারণেই তার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

হিংসা বন্ধ করা এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ বজায় রাখার জন্য গত সপ্তাহেই রাজ্যবাসীর কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন ত্বহা সিদ্দিকী।গত শনিবার হাওড়ায় হিংসা বন্ধের আবেদন করে ত্বহা বলেছিলেন, “নূপুর শর্মাদের করা বিবৃতির জন্য বহু মুসলমান পথে নেমেছেন। রাস্তাঘাট অবরোধ করছেন। এটা কোনও ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

মানুষকে কষ্ট দিয়ে অবরোধ ইসলাম শেখায়নি। এটা শরিয়তের শিক্ষা নয়। আপনাদের জানা নেই ওই বিক্ষোভে আরএসএস ঢুকে ঢিল ছুড়বে। আর তাতে বদনাম হবে মুসলমানদের।বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, “আমি পীরের ছেলে হয়ে আপনাদের কাছে করজোড়ে আবেদন করছি, পায়ে ধরে আবেদন করছি এমন কাজ করবেন না যাতে সমগ্র মুসলমান সমাজের বদনাম হয়। আমরা হিন্দু-মুসলমান মিলেমিশে বাস করি।

নূপুর শর্মার মত লোকেরা হিন্দু-মুসলমানের ঐক্য ভাঙার চেষ্টা করছে আর সেই ফাঁদে আমরা পা দিচ্ছি।নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এই ভিডিয়োর ভিত্তিতে ত্বহার বিরুদ্ধে হুগলির উত্তরপাড়া-সহ কয়েকটি থানায় এফআইআর দায়ের হয়েছে।অন্য দিকে সোমবার ফুরফুরা শরিফের আর এক পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি একটি ভিডিয়ো-বার্তায় বলেছেন, আমাকে নিয়ে অনেক মিথ্যা প্রচার চলছে, গুজবে কান দেবেন না।

Related Articles

Back to top button